Last Update:-

ঐক্যের বন্ধনে, সমাজ বিনির্মাণে......

রক্তের সাগরে ভেসে আসা লাল সবুজ পতাকার এই দেশের মানুষের ঐক্যবদ্ধ হওয়া তাঁদের সহজাত প্রবৃত্তি। এ জাতি ঐক্যবদ্ধতার মাধ্যমে আদায় করেছেন ভাষার অধিকার, স্বাধীনতা, গণতন্ত্র। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে নানা প্রতিকুল পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে অতিক্রম করতে হয়েছে আমাদের। মোকাবেলা করতে হয়েছে অসংখ্য প্রাকৃতিক দুর্যোগ। রয়েছে সমাজের অনুন্নত গোষ্ঠীর মধ্যে নানা কুসংস্কার, বাল্যবিবাহ, যৌতুক প্রথা, অনাচার, অবিচার, মাদক দ্রব্যের অবাধ বিস্তার, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য সচেতনতার অভাব প্রভৃতি নানাবিধ সমস্যা। ফলে সমাজ তথা দেশের উন্নয়ন কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছতে বাধাগ্রস্ত হয়েছে। দেশ তথা সমাজের উন্নয়নের স্বার্থে সমাজের একটি অংশ গড়ে তোলেন বিভিন্ন অরাজনৈতিক, সামাজিক, পেশাজীবি, সাংস্কৃতিক ও সেবামূলক সংগঠন। সরকারের পাশাপাশি এসকল সংগঠন সমাজ গঠনে অবদান রেখে চলেছে নিরলসভাবে। তবে লক্ষণীয় বিষয় হলো, ঐ সকল সংগঠনের সাথে যুক্ত ব্যক্তিবর্গ একটি নির্দিষ্ট পেশার সাথে সম্পৃক্ত। সাংবাদিক সমাজের যেমন রয়েছে বেশকিছু সংগঠন তেমনি পেশাজীবীদের মধ্যে রয়েছে অসংখ্য সংগঠন। কিন্তু সাংবাদিক ও পেশাজীবিদের সমন্বয়ে কোন সংগঠন খুব একটা গড়ে উঠেনি। এ সকল সংগঠনগুলোর কোনটার আবার রাজনৈতিক বা দলীয় দৃষ্টিভঙ্গি প্রত্যক্ষভাবে দৃশ্যমান হয়। ফলে দেশের সর্বস্তরের জনগণের আস্থার প্রতিফলন বিঘিœত হয়। সাংবাদিক সমাজের বিভিন্ন সংগঠনের কার্যক্রম পরিলক্ষিত হলেও এ সকল অনেক সংগঠনে আবার সকল সাংবাদিকেরা নানা প্রতিকুলতার কারণে অংশগ্রহণ করতে পারেন না। ভিন্ন পেশাজীবির সেখানে অংশগ্রহণ নিষিদ্ধই বলা চলে। আবার পেশাজীবি সংগঠনগুলোতেও সাংবাদিকদের অংশগ্রহণ খুব একটা দৃশ্যমান হয় না। এছাড়া দেশের বরেণ্য কবি, সাহিত্যিক, লেখকদের নিজস্ব সংগঠন থাকলেও সেখানে আবার অন্য পেশাজীবিদের প্রবেশাধিকার সংকুচিত করা হয়েছে। ফলে দেশ তথা সমাজের সার্বিক উন্নয়ন বলতে যা বোঝায়, তা পূরণ করতে শতভাগ সফল হতে পারছে না সংগঠনগুলো।
আমাদের শ্লোগান “ঐক্যের বন্ধনে, সমাজ বিনির্মাণে”। আমরা চাই দেশের সকল শ্রেণি পেশার মানুষদের অংশগ্রহণে একটি ঐক্যের মেলবন্ধন স্থাপন করতে। সেখানে দেশের বরেণ্য কবি, সাহিত্যিক, সাংবাদিক, শিক্ষিত পেশাজীবিদের সক্রিয় অংশগ্রহণের মাধ্যমে সমাজ তথা দেশের সার্বিক কল্যাণে আতœনিয়োগের পথ প্রশস্ত করা। এখানে নবীন লেখকদেরও অংশগ্রহণে কোন বাঁধা থাকবে না। উন্মুক্ত থাকবে সমগ্র বাংলাদশের আনাচে-কানাচে দায়িত্ব পালনকারী সকল শ্রেণির সাংবাদিক ও শিক্ষিত পেশাজীবিদের প্রবেশাধিকার। বিস্তারিত.....

News Of BossDhaka

 
Copyright © 2015 by BOSSDHAKA.ORG All Rights Reserved.